চাকরির আবেদন ফি কমানো সহ ৮ দফা দাবিতে ‘ছাত্র অধিকার পরিষদ’ এর আন্দোলনের ডাক

Share This Story !

স্টারবার্তা ঢাকা প্রতিনিধি: চাকরির আবেদন ফি ১০০ টাকার মধ্যে রাখা, জাতীয় নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়ন, বিভাগীয় শহরে নিয়োগ পরীক্ষা নেয়া, বিদেশী নাগরিকদের সংখ্যা কমিয়ে দেশীয় বেকারদের কর্মসংস্থানের ক্ষেত্র সৃষ্টি করা সহ ৮ দফা দাবিতে আন্দোলনের ডাক দিয়েছে “বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ”।

ইতিমধ্যে সংগঠনটির আহ্বায়ক হাসান আল মামুন এর আহ্বানে একটি ফেসবুক ইভেন্ট খুলা হয়েছে। ইভেন্টে আন্দোলনের দাবি দাওয়া বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। ফেসবুক ইভেন্ট এর বিস্তারিত লেখাটি স্টারবার্তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

দেশে প্রকৃত বেকার এর সংখ্যা ৪ কোটি ৮২ লাখ আর শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা ২৭ লাখ প্রায়। উন্নত বিশ্বে বেকারদের কর্মসংস্থান হওয়ার আগ পর্যন্ত সরকার তাঁদের ভাতা দিয়ে থাকে। আমাদের দেশে ঘটছে উল্টোটা। চাকরির বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে চাকরি দেওয়ার নামে চলে চাকরিপ্রার্থীর টাকা হাতিয়ে নেওয়ার প্রতিযোগিতা।

এ বিষয়টি ছাত্র অধিকার পরিষদের বিবেচনায় এসেছে যে চাকরি প্রত্যাশীদের চাকরির গ্যারান্টি নেই; অথচ তার আগেই গুনতে হয় আবেদন ফি! আর এ টাকা নেওয়া হয় বেকারদের কাছ থেকে, যাঁদের বেশির ভাগেরই আয়ের কোনো পথ নেই।

এছাড়া বিভাগীয় শহরে এক্সাম, প্রিলিতে নম্বর প্রকাশে অনীহা, জাতীয় নিয়োগ প্যানেল সহ বৈষম্যমূলক ৮ টি বিষয় আমাদের বিবেচনায় এসেছে।

নিয়োগ সংস্কারে ছাত্র অধিকার পরিষদ এর ৮ দফাঃ
১। চাকরির আবেদন ফি সর্বোচ্চ ১০০ টাকার মধ্যে রাখতে হবে।
২। বিভাগীয় শহরে নিয়োগ পরীক্ষা নিতে হবে।
৩। প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার নাম্বার পৃথকভাবে প্রকাশ করতে হবে।
৪। সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিতসহ সকল নিয়োগের জন্য পিএসসির আদলে জাতীয় নিয়োগ প্যানেল গঠন করতে হবে।
৫। জাতীয় নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে।
৬। তথ্য যাচাইয়ের নামে অযথা হয়রানি বন্ধ করতে হবে।
৭। বেকারত্ব নিরসনে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে হবে।
৮। দেশে চাকরিরত বিদেশী নাগরিকদের সংখ্যা কমিয়ে দেশীয় বেকারদের কর্মসংস্থানের ক্ষেত্র সৃষ্টি করতে হবে।

আমরা ছাত্রসমাজ ও চাকুরি প্রার্থীদেরকে আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার দেশব্যাপী মানবন্ধন করার আহবান জানাচ্ছি। কেন্দ্রীয়ভাবে, শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে দুপুর ১২.৩০ মিনিটে উক্ত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে।

আহবানে,
হাসান আল মামুন
আহবায়ক
বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *