করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জার্মানির ব্যাভারিয়া স্টেটকে লক ডাউন ঘোষণা

Share This Story !

স্টারবার্তা জার্মান প্রতিনিধি: ব্যাভারিয়ান সরকার, ব্যাভারিয়াকে লক ডাউন করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আজ রবিবার দুপুর সাড়ে তিনটায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সকল ধরণের পাব্লিক গ্যাদারিং, রেস্টুরেন্ট, বিজনেস সেক্টরও বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

এমতবস্থায়, শুধুমাত্র জরুরী পরিসেবা, ফার্মেসী, ব্যাংক এবং সুপারশপ গুলো খোলা থাকবে।

Source Link: https://www.merkur.de/bayern/coronavirus-bayern-markus-soeder-massnahmen-schliessung-grenze-geschaefte-gastronomie-muenchen-zr-13599530.html?fbclid=IwAR1e3AMqWo4tasHDaE_ATHBQr2MQvts3F75rjMDnuAE8tjfyUvUib67l2nY

জার্মানিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, জার্মানিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৫ হাজার ৭৯৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। আর এই ভাইরাসে মারা গেছেন ১১ জন। এদিকে করোনাভাইরাসের বিস্তার কমিয়ে আনতে জার্মানির ১৬ রাজ্যেই কাল সোমবার থেকে অস্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড ও ফ্রান্সের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। একই দিন থেকে দেশের সব স্কুল, ডে-কেয়ার সেন্টার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন শনিবার ও আজ রোববার প্রথম জার্মানিজুড়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক লক্ষ করা যাচ্ছে। শনিবার বড় শহরগুলোর সিটি সেন্টার ও খাদ্যপণ্যের দোকান ছাড়াও বড় বড় সুপার মার্কেট অনেকটা ফাঁকা ছিল। কাল সোমবার থেকে জার্মানিতে কিন্ডারগার্টেন, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘করোনাভাইরাস পুরো বিশ্বের জন্য বিরাট এক চ্যালেঞ্জ। আর দীর্ঘদিন আমরা এ ধরনের পরিস্থিতির মুখোমুখি হইনি।’ তিনি আবার এ সময় সবাইকে সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগ এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন।

সংক্রমণের হার কমাতে এবং ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে প্রত্যেকেরই দায়িত্ব রয়েছে উল্লেখ করে ম্যার্কেল বলেন, ‘খেয়াল রাখতে হবে, এই সংক্রমণ ব্যাধি যেন আমাদের স্বাস্থ্যব্যবস্থাকে ঝুঁকিতে না ফেলে দেয়। বিশেষ করে বয়স্ক ও ইতিমধ্যেই নানা রোগে অসুস্থ মানুষ যেন কোভিড-১৯ ভাইরাস থেকে রক্ষা পায়, সেদিকে সবাইকে নজর রাখতে হবে।’

জার্মানির পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, হাসপাতালের জরুরি বিভাগে লোকবল বৃদ্ধি করা হয়েছে। চিকিৎসা ও মেডিসিন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থীদের বিশেষ প্রয়োজনে হাসপাতাল ও জরুরি চিকিৎসাকেন্দ্রে সহায়তা করতে বলা হয়েছে। রেডক্রস দেশজুড়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষায় বিশেষ কেন্দ্র খুলেছে।

জার্মানির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কর্মীদের জন্য বাসায় বসে কাজ করতে হোম অফিসের ব্যবস্থা করেছে। গত শুক্রবার থেকে জার্মানির জনপ্রিয় ফুটবল লিগ বুন্দেস লিগা স্থগিত করা হয়েছে। থিয়েটার, অপেরা, জাদুঘর, চিড়িয়াখানা, সুইমিংপুল বন্ধ ঘোষিত হয়েছে। উপাসনালয়গুলোতে রোববারের প্রার্থনা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় মুসলিম কাউন্সিল মসজিদে গিয়ে জুমার নামাজ না পড়তে অনুরোধ করেছে।

সর্বশেষ খবরে জানা যায়, এই মুহূর্তে ইউরোপে ইতালি ও স্পেনের পর জার্মানিতে সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। আর চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে ফ্রান্স।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *